চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়-খ ইউনিট-শিক্ষাবর্ষ: ২০১৯-২০-বাংলা-সকাল-শিফট

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়-খ ইউনিট-শিক্ষাবর্ষ: ২০১৯-২০-(সকাল)

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার খ-ইউনিটের বাংলার প্রশ্নপত্রের ৩৫টি প্রশ্ন-উত্তর নিচে দেওয়া হয়েছে। এখানে সকাল শিফটের পরীক্ষার এমসিকিউ ব্যাখ্যা সহ আলোচনা করা হয়েছে।

১. অন্তরে যাদের এত গোলামির ভাব, তারা বাইরের গোলামি থেকে রেহাই পাবে কী করে?-কোন প্রবন্ধের অংশ?

READ ALSO

A. বিড়াল B. চাষার দুক্ষু C.আমার পথ D. জীবন ও বৃক্ষ

ব্যাখ্যা : প্রাবন্ধিক কাজী নজরুল ইসলাম রচিত ‘আমার পথ’ প্রবন্ধের গুরুত্বপূর্ণ কিছু লাইন।

• অন্তরে যাদের এ গোলামির ভাব, তারা বাইরের গোলামি থেকে রেহাই পাবে কী করে?

• নিজেকে চিনলে মানুষের মনে আপনা-আপনি এত বড় একটা জোর আসে যে, সে আপন সত্য ছাড়া আর কাউকে কুর্নিশ করে না।

• নিজেকে চিনলে, নিজের সত্যকেই নিজের কর্ণধার মনে জানলে নিজের শক্তির উপর অটুট বিশ্বাস আসে।

• এই পরাবলম্বনই আমাদের নিষ্ক্রিয় করে ফেললে।

Ans: C.

২. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ‘ঐকতান’ বলতে বুঝিয়েছেন-

A. ধনী-গরিবের মিলন B. বৃদ্ধ ও তরুণের মিলন C. নারী-পুরুষের মিলন D. জীবনের সর্বপ্রান্তস্পর্শী সমস্বর

ব্যাখ্যা: কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ঐকতান’ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

• কবির মতে ঐকতান হলো- জীবনের সর্বপ্রান্তসম্পদী সমস্বর ।

• অখ্যাতজনের নির্বাক মনের কবি- প্রান্তিক মানুষের কবি।

• কবি সম্মান দিতে বলেছেন, একতারাওয়ালাদের।

• নতশির স্তব্ধ যারা বিশ্বের সম্মুখে তারা-দুঃখে সুখে মূক (বোবা) থাকে।

• কর্মে ও কথায় আত্মীয়তা অর্জন করেছে-কৃষাণের জীবনের শরিক যে কবি।

• কবি মেনে নিয়ে নিন্দার কথা এবং তার-সুরের অপূর্ণতা।

•নিরানন্দ মরুভূমি রসে পূর্ণ করবে-অনাগত কবি।

Ans: D

৩. উপসর্গযুক্ত শব্দ কোনটি?

A. পঙ্কজ B.জ্বালাতন C.কদবেল D.মাচান

ব্যাখ্যা: গুরুত্বপূর্ণ কিছু বাংলা উপসর্গ এবং উপসর্গযুক্ত শব্দ:

•কু-কুকথা, কুকজা, কুনজর, কুসঙ্গ।

•কদ-কদবেল, কদর্থ, কদর্য, কদাকার।

•নি-নিলাজ, নিখুঁত, নিখোঁজ, নিভাঁজ, নিরেট।

•ম-সলাজ, সজোর, সঠিক, সরবপাঠ।

•রাম-রামদা, রামছাগল, রামধনু, রামবোকা, রামঘড়ি।

Ans.C

৪. ‘এই পৃথিবীতে এক স্থান আছে’ কবিতায় রুপসীর নাম কী?

A.মানিকমালা B.শঙ্খমালা C.কঙ্কাবতী D.বনলতা

ব্যাখ্যা: কবি জীবনানন্দ দাশ রচিত এই পৃথিবীর এক স্থান আছে’ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য:

•এই পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর স্থানটি-করুণ বাংলাদেশ।

• মধুকূপী ঘাসে অবিরল থাকে-সবুজ ডাঙা।

• নাটার রঙের মত অরুণ (সূর্য) জাগে-ভোরের মেঘে।

• কর্ণফুলী, ধলেশ্বরী, পদ্মা, জলাঙ্গীরে জল দেয়-বরুণ।

•ধানের গন্ধের মত অস্ফুট থাকে-লক্ষ্মীপেঁচা।

•অন্ধকার সন্ধ্যার বাতাসে উড়ে যায়-সুদর্শন (পোকা)।

•হলুদশাড়ি (শঙ্খমালা) লেগে থাকে-রুপসীর (বাংলা)শরীরে।

Ans.B

৫.ঐহিক শব্দের বিপরীত শব্দ হলো-

A.বিষণ্ন B.বিবাদ C.বৈরাগ্য D.পারত্রিক

ব্যাখ্যা: গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিপরীতশব্দ শব্দ।

•অপ্রতিভ-সপ্রতিভ • অহৃ-রাত্রি •আরদ্ধ-অনারদ্ধ •পূজক-পূজ্য •জনাকীর্ণ-জনবিরল •চৌকস-হাবা •শঠ-সাধু •অধিত্যকা-উপত্যকা •হলাহল-অমৃত •ঐহিক-পারত্রিক।

Ans: D.

৬. বিশ শতকীয় পুরুষতন্ত্রের অমানবিকতার কাহিনি কোনটি?

A. নেকলেস B. রেইনকোট C.অপরিচিতা D. আমার

ব্যাখ্যা: গল্পকার রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত অপরিচিতা’ গল্পের গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য:

• ‘অপরিচিতা’ গল্পে ফুটে উঠেছে- পুরুষতন্ত্রের অমানবিকতা।

• গল্পটি মনস্তাপে ভেঙ্গেপড়া এক ব্যক্তিত্বহীন যুবকের স্বীকারোক্তি।

• এ গল্পে বর্ণিত হয়েছে অনুপমের পাপস্থলনের অকপট কথামালা।

• গল্পের নায়িকা কল্যাণী অসামান্য হয়েছে- অনুপমের আত্মবিবৃতিতে।
.
• ভবিষ্যতের নারীর আগমনীর ইঙ্গিত রয়েছে কল্যাণীর-শুচিশুভ্র প্রকাশে।

• শম্ভুনাথের বলিষ্ঠ প্রত্যাখ্যান- নতুন সময়ের আবির্ভাবের সংকেত।

• গল্পটির শীর্ষ মুহুর্ত- কন্যা সম্প্রদানে অসম্মতি।

Ans: C.

৭. ‘রক্তে আমার অনাদি অস্থি’ কবিতায় নিচের কোন নদীর উল্লেখ নেই?

A.পদ্মা B.করতোয়া C. সুরমা D.কর্ণফুলী

ব্যাখ্যা: কবি দিলওয়ার রচিত ‘রক্তে আমার অনাদি অস্থি’ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

• কবি পদ্মার কাছে চেয়েছেন যৌবন। আর যমুনার কাছে চেয়েছেন- প্রেম।

• সুরমার কাজল (কালো) বুকের পলিতে থাকে-গলিত হেম (স্বর্ণ)।

• কবিতাটিতে বর্ণিত নদীগুলো- পদ্মা, যমুনা, সুরমা, মেঘনা, গঙ্গা কর্ণফুলী (৬টি)।

• চারিদিকে খেলা করে – বিচিত্র জীবনের।

• কবি প্রাণ স্বপ্নকে রেখেছে-বঙ্গোপসাগরে।

• প্রাণের জাহাজ বোঝাই থাকে-নরমানবের মুখে।

• কবির ক্রোধ- ভয়াল ঘূর্ণির মতো এবং উপমাহীন।

Ans: B.

৮. সভয়ে লোকটি বলল, বাঘ আসছে। এখানে নিম্নরেখ পদটি কোন বিশেষণের উদাহরণ?

A.ক্রিয়ার বিশেষণ B.বিশেষণের বিশেষণ C. বিধেয় বিশেষণ D.শেষ্যের বিশেষণ

Ans: A

৯. মুমূর্ষ অবস্থা থেকে কৃষকদের মুক্তির জন্য রোকেয়া গ্রামে গ্রামে কী প্রতিষ্ঠার ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন?

See also  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ভর্তি তথ্য ২০২২-২০২৩

A. গো-খামার B. কল-কারখানা C. হাসপাতাল D. পাঠশালা

ব্যাখ্যা : প্রাবন্ধিক রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনের ‘চাষার দুক্ষু’ প্রবন্ধের গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য:

• সমস্ত ভারতের অধিবাসী নয়- মুষ্টিমেয় সৌভাগ্যশালী ধনাঢ্য ব্যক্তি।

• গ্রবন্ধটির আলোচ্য বিষয়- চাষার দারিদ্র্য্য বা দরিদ্রতা।

• আমাদের আছে- মোটরকার, গ্রামোফোন।

•জুটমিলের কর্মচারীর বেতন ৫০০-৭০০ টাকা।

• চাষার দারিদ্রা ঘুচিবে – পাঠশালা আর চরকা ও টেকো হইলে।

Ans: D.

১০. ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯’ কবিতাটি শামসুর রাহমানের কোন কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত?

A. রৌদ্র করোটিতে B. প্রথম গান দ্বিতীয় মৃত্যুর আগে C. বন্দিশিবির থেকে D. নিজ বাসভূমে

ব্যাখ্যা: কবি শামসুর রাহমানের ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯’ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ | কিছু তথ্য :
.
•কবিতাটির উৎস- ‘নিজ বাসভূমে’ কাব্যগ্রন্থ।

•কবিতাটির ধরণ – সংগ্রামী চেতনার, দেশপ্রেমের এবং গণজাগরণের কবিতা ।

• কবিতাটি রচিত – ১৯৬৯ এর গণআন্দোলনের পটভূমিতে।

• কবি এখানে রচনা করেছেন- বিচিত্র শ্রেণি পেশার মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত সংগ্রামী চেতনার অসাধারণ এক শিল্পভাষ্য ।

• কবিতাটিতে সংবর্ষিত হয়েছে – দেশের প্রতি জনগণের ভালোবাসা।

• কবিতাটি গদ্যছন্দে রচিত।

Ans: D.

১১. নূরলদীনের ডাকে কত সালে বাংলার মানুষ জেগে উঠেছিল?

A.১৭৫৭ B. ১৮৫৭ C. 1991 D. ১৭৮৩

ব্যাখ্যা: কবি সৈয়দ শামসুল হকের কবিতার গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

• নুরলদীনের কথা মনে পড়ে যায়’।

• নূরলদীন বাংলার মানুষকে ডাক দেয়- ১৭৮৩ সালে (১১৮৯ সন)।

• ক্ষেত, মাঠ, নদী, বীজ এবং সংসার-নষ্ট হয়ে গেছে।

• নিলক্ষার (আকাশ) নীলে হঠাৎ দেখা দেয়- তীব্র শিস।

• কবিতাটিতে উল্লিখিত নদীটির (১টি) নাম- ব্রহ্মপুত্র।

• কবির মিনতি সকলকে-স্থির হয়ে বসার জন্য।

• নূরলদীনের বাড়ি ছিল- রংপুরে।

• সোনার বাংলায় নেমে আসে-শকুন।

Ans: D

১২. ফরাসি, লেখক মোপাসার সাহিত্যগুরু কে ছিলেন?

A. গুপ্তা ফ্লবেয়ার B. এমিল জোলা C. ইভান তুর্গেনিত D. লিও তলস্তয়

ব্যাখ্যা: গল্পকার গী দ্য মোপাসা’ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য:

• জন্ম- নর্মান্ডি শহরে (১৮৫৩); মৃত্যু: ১৮৯৩ সালে।

• পিতা- গুস্তাভ দ্য মোপাসাঁ, মাতা- লরা লি পয়টিভিন।

• তাঁর সাহিত্যিক গুরু বা অভিভাবক-গুস্তাভ ফ্লবেয়ার।

•ফ্লবেয়ার বাসায় পরিচয় ঘটে-এমিল জোলাও ইভান তুর্ণনেড সহ
অনেক বিশ্ববিখ্যাত লেখকের সাথে।

• তাঁর সাহিত্য জীবন শুরু হয় কবিতা লেখা দিয়ে।

Ans: A.

১৩. স্বল্পপ্রাণ, স্থূলবুদ্ধি ও জবরদপ্তিপ্রিয় মানুষে সংসার পরিপূর্ণ। কোন প্রবন্ধের অংশ?

A. জীবন ও বৃক্ষ B. আত্মচরিত C. আমার পথ D. মানব কল্যাণ

ব্যাখ্যা : প্রাবন্ধিক মোতাহের হোসেন চৌধুরীর ‘জীবন ও বৃক্ষ প্রবন্ধের গুরুত্বপূর্ণ কিছু লাইন :

• স্বল্পপ্রাণ, স্থূলবুদ্ধি ও জবরদপ্তিপ্রিয় মানুষে সংসার পরিপূর্ণ।

• তাদের কাজ জীবনকে সার্থক ও সুন্দর করে তোলা নয় অপরের সার্থকতার অন্তরায় সৃষ্টি করা।

• এদের একমাত্র দেবতা অহংকার। তারই চরণে তারা নিবেদিতপ্রাণ। ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও জাতিগত অহংকারের নিশান উড়ানোই এদের কাজ।

• মাঝে মাঝে মানবপ্রেমের কথাও তারা বলে। কিন্তু তাতে নেশা ধরেনা। মনে হয় আন্তরিকতাশূন্য, উপলব্ধিহীন বুলি ।

Ans: A.

১৪. ‘আমি কিংবদন্তির কথা বলছি’ কবিতাটি কোন ছন্দে রচিত?

A. স্বরবৃত্ত B. মাত্রাবৃত্ত C. অক্ষরবৃত্ত D. গদ্য

ব্যাখ্যা : কবি আবু জাফর ওবায়দুল্লাহ রচিত ‘আমি কিংবদন্তির কথা। বলছি’ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

• কবিতাটি একটি কাব্যগ্রন্থের নাম কবিতা।

•রচনাটির অভিনবত্ব রয়েছে – বিষয় ও আঙ্গিকগত।

• এ কবিতায় উচ্চারিত হয়েছে – মুক্তির দৃপ্ত ঘোষণা।

• কবিতাটির প্রেক্ষাপটে রয়েছে – বাঙালির ইতিহাস, সংগ্রাম, বিজয়।

•কবি এখানে বারবার সোচ্চার হন -মানব মুক্তির আকাঙ্ক্ষায়।

কবির একান্ত প্রত্যাশিত মুক্তির প্রতীক – একটি শব্দবন্ধ ‘কবিতা’।

কবিতাটি রচিত – গদ্যছন্দে।

Ans: D

১৫. ‘মসজিদ এই, মন্দির এই, গির্জা —- সাম্যবাদী কবিতার এই চরণের শূন্যস্থানে কী বসবে?

A. দেবালয় B. এই হৃদয় C. আনন্দময় D. ভূবনময়

ব্যাখ্যা : কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘সাম্যবাদী’ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ | কিছু চরণ :

“মসজিদ এই, মন্দির এই, গির্জা এই হৃদয়,
এইখানে বসে ঈসা মুসা পেল সত্যের পরিচয়।
এই রণভূমে বাঁশির কিশোর গাহিলেন মহা-গীতা,
এই ঘাটে হলো মেঘের রাখাল নবিরা খোদার মিতা।
এই হৃদয়ের ধ্যান-গুহা মাঝে বসিয়া শাক্যমুনি,
ত্যজিল রাজ্য মানবের মহা-বেদনার ডাক শুনি।”

See also  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার যোগ্যতা-মানবন্টন

Ans: B.

১৬. কোন গল্পটিতে স্বামীর নির্যাতনের শিকার পিতৃমাতৃহীন তরুণীর জীবন কাহিনি ফুটে উঠেছে?

A. অপরিচিতা B. বিলাসী C. আহ্বান D. মাসি-পিসি

ব্যাখ্যা : মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় রচিত ‘মাসি-পিসি’ গল্পের গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

•গল্পটির প্রেক্ষাপট – ১৯৪৩ সালের সৃষ্ট দুর্ভিক্ষ।

• আহ্লাদির মাসি-পিসি দুজনেই – বিধবা ও নিঃস্ব।

• গল্পটির মূল কাহিনি – স্বামী নির্যাতিত পিতৃ-মাতৃহীন আহাদির জীবন কাহিনি।

• গল্পটি প্রকাশিত হয় – কলকাতার পূর্বাশা পত্রিকায় (১৯৪৬)।

• গোকুল এর চরিত্র – লালসাপূর্ণ এবং উন্মাদ প্রকৃতির জোতদার।

• গল্পের প্রশংসনীয় দিক – মাসি-পিসির দায়িত্বশীল ও মানবিক জীবনযুদ্ধ।

• জাগুর চরিত্র- মাতাল, অত্যাচারী এবং লোভী (শ্বশুরের জমির গোত)।

Ans: D.

১৭. কোনটি মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গল্প?

A. আহ্বান B. সৌদামিনী মালো C. মানুষ D. রেইনকোট

ব্যাখ্যা : গল্পকার আখতারুজ্জামান ইলিয়াস এর ‘রেইনকোট’ গল্পের গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

• গল্পটির প্রকাশকাল – ১৯৯৫ সাল।

• গল্পটির প্রেক্ষাপট – বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ (১৯৭১)।

• গল্পটির উৎস – আখতারুজ্জামান ইলিয়াস রচনাসমগ্র-১।

• গল্পটি সংকলিত হয় – গল্পগ্রন্থ ‘জালস্বপ্ন স্বপ্নের জাল’- এ।

• গল্পটির কথক- ঢাকা কলেজের রসায়ন বিভাগের শিক্ষক নুরুলহুদা।

• গল্পে বর্ণিত হয়েছে – পাকিস্তানি বাহিনীর বর্বর নিপীড়ন ও হত্যাযজ্ঞের মধ্যে ঢাকাবাসীর আতঙ্কিত জীবনাচরণ।

Ans: D.

১৮. ‘তেলা মাথায় তেল দেওয়া মনুষ্যজাতির রোগ – দরিদ্রের ক্ষুধা কেহ বুঝে না’- কোন রচনা থেকে নেওয়া?

A. চাষার দুক্ষু B. বিড়াল C. মানব কল্যাণ D. মানুষ

ব্যাখ্যা : প্রাবন্ধিক বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘বিড়াল’ প্রবন্ধের গুরুত্বপূর্ণ কিছু সংলাপ :

• তেলা মাথায় তেল দেওয়া মনুষ্যজাতির রোগ।

• দরিদ্রের ক্ষুধা কেহ বুঝেনা।

• ধর্ম কী? পরোপকারই পরম ধর্ম।

• চুরিই করি, আর যাই করি, আমি তোমার ধর্মসঞ্চয়ের মূলীভূত কারণ।

• চুরির মূল যে কৃপণ, তাহার দন্ড হয় না কেন?

• চোর দোষী বটে, কিন্তু কৃপণ ধনী তদপেক্ষা শত গুণে দোষী ।

• এ পৃথিবীর মৎস্য-মাংসে আমাদের কিছু অধিকার আছে।

• চোরের দন্ড আছে, নির্দয়তার কি দন্ড নাই?

• দরিদ্রের আহার সংগ্রহের দন্ড আছে, ধনীর কার্পণ্যের দন্ড নাই কেন?

Ans: B.

১৯. ইয়ে কেয়া বাত হ্যায়, আপ জেলখানা মে। আমি বললাম, কিসমত।’ উক্তিটি কাকে করা হয়েছে?

A. মহিউদ্দিনকে B. আর্মড পুলিশের সুবেদারকে C. রেণুকে D. ডেপুটি জেলারকে

ব্যাখ্যা : শেখ মুজিবুর রহমান রচিত ‘বায়ান্নর দিনগুলো’ থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

• জেল কর্তৃপক্ষের নাম – সুপারিনটেনডেন্ট আমীর হোসেন।

.•তৎকালীন রাজবন্দিদের ডেপুটি জেলার মোখলেসুর রহমান।

• “ইয়ে কেয়া বাত হ্যায়, আপ জেলখানামে’ উক্তিটি- আর্মড পুলিশের সুবেদারের।

• ‘কিসমত’ উক্তিটি শেখ মুজিব করে- সুবেদারের প্রতি।

•গাড়ির ভিতরে শেখ মুজিবদের সাথে বসেছিল- দুজন আর্মড পুলিশ।

•ট্রেনে তাঁরা ফরিদপুর পৌঁছায় – রাত চারটায়।

• তাঁদের হাসপাতালে নেওয়া হয়, অনশন শুরুর – দুই দিন পর।

Ans: B.

২০. কোনটি আনিসুজ্জামান রচিত গ্রন্থ নয়?

A. বাঙালি নারী B. বিপুলা পৃথিবী C. মুসলিম মানস ও বাংলা সাহিত্য D. সংস্কৃতি কথা

ব্যাখ্যা : সাহিত্যিক আনিসুজ্জামান রচিত বিখ্যাত গ্রন্থসমূহ :

•মুসলিম মানস ও বাংলা সাহিত্য •আঠারো শতকের বাংলা চিঠি • বাঙালি নারী • পূর্বগামী • ফতোয়া • স্বরূপের সন্ধানে
• পুরোনো বাংলা গদ্য • সাহিত্যে ও সমাজে • কাল নিরবধি • বিপুলা পৃথিবী
Ans: D.

২১. রাবণি বলতে কাকে বোঝানো হয়?

A. মেঘনাদকে B. রাবণকে C. রামচন্দ্রকে D. বিভীষণকে

ব্যাখ্যা : মেঘনাদের বিভিন্ন নাম :

• রাবণি- রাবনের পুত্র হওয়ায় মেঘনাদকে রাবণি বলা হয়।

• ইন্দ্ৰজিৎ/জীতেন্দ্রিয়- দেবতাদের রাজা ইন্দ্রকে যুদ্ধে পরাজিত করায় মেঘনাদকে ইন্দ্ৰজিৎ/জীতেন্দ্রিয় বলা হয়।

• বাসবত্রাস/বাসববিজয়ি- ইন্দ্রের অপর নাম বাসব। বাসবকে পরাজিত করলে স্বভাবতই বাসব মেঘনাদকে ভয় পায়, এজন্য মেঘনাদকে বাসবত্রাস/বাসববিজয়ি বলা হয়।

• অরিন্দম – অরি অর্থ শত্রু। মেঘনাদ অরিকে দমন করেছে বলে তাঁকে অরিন্দম বলা হয়।

Ans: A.

২২. ‘আঠারো বছর বয়সের নেই ভয়’ – পরের লাইনটি কী?

A. পদাঘাতে চায় ভাঙতে পাথর বাধা
B. তাজা তাজা প্রাণে অসহ্য যন্ত্রণা
C. এ বয়সে কেউ মাথা নোয়াবার নয়
D. এ বয়সে তাই নেই কোন সংশয়

See also  জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কিল-বেসড পোস্ট পিজিডি কোর্সের ভর্তির সময়সীমা বৃদ্ধি

ব্যাখ্যা : কবি সুকান্ত ভট্টাচার্যের ‘আঠারো বছর বয়স’ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ কিছু চরণ :

“আঠারো বছর বয়সের নেই ভয়।
পদাঘাতে চায় ভাঙতে পাথর বাধা,
এ বয়সে কেউ মাথা নোয়াবার নয়-
আঠারো বছর বয়স জানেনা কাঁদা।
এ বয়স জানে রক্তদানের পূণ্য
বাষ্পের বেগে স্টিমারের মতো চলে”

Ans: A.

২৩. ‘সেই অস্ত্র’ কবিতাটি আহসান হাবীবের কোন গ্রন্থ থেকে নেওয়া হয়েছে?

A. রাত্রিশেষ B. সারাদুপুর C. বিদীর্ণ দর্পণে মুখ D. ছায়াহরিণ

ব্যাখ্যা : কবি আহসান হাবীবের ‘সেই অস্ত্র’ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

• কবিতাটির উৎস-বিদীর্ণ দর্পণে মুখ।

• কবিতায় কবির প্রত্যাশা – ভালোবাসাকে মানুষের কাছে ফিরে পাওয়া।

• কবিতাটির গঠনগত বিশেষত্ব- অনাড়ম্বর সহজ গতিময়তা।

• কবিতাটি শান্তিপ্রিয় মানুষের কাছে- প্রার্থনাসংগীত।

• এর ছন্দ- অক্ষরবৃত্ত। পর্ববিন্যাস- অসম।

• ভালোবাসা পৃথিবীকে এগিয়ে নিবে- সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধির দিকে।

Ans: C.

২৪. ‘লালসালু’ উপন্যাসে তানু বিবির স্বামীর নাম কী?

A. ধলা মিয়া B. কালু মিয়া C. খালেক ব্যাপারী D. রতন

ব্যাখ্যা : সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ রচিত ‘লালসালু’ উপন্যাসের তানু বিবির সাথে বিভিন্ন চরিত্রের সম্পর্ক :

• তানুবিবি খালেক ব্যাপারির দ্বিতীয় স্ত্রী ।
• খালেক ব্যাপারী- তানু বিবির স্বামী ।
• আমেনা বেগম – তানু বিবির সতীন।
• ধলা মিয়া- তানু বিবির বড় ভাই ।

Ans : C.

২৫. সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ দেখেননি কোনটি?

A. নাটক B. উপন্যাস C. গল্প D. আত্মজীবনী

ব্যাখ্যা: কথাসাহিত্যিক সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ রচিত বিভিন্ন রচনার নাম :

উপন্যাস: লালসালু, চাঁদের অমাবস্যা, কাঁদো নদী কাঁদো।

নাটক: বহিপীর, তরঙ্গভঙ্গ, সুড়ঙ্গ, উজানে মৃত্যু।

ছোটগল্প: নয়নচারা, জাহাজী, পরাজয়, মৃত্যু-যাত্রা, খুনী, রক্ত, খন্ড চাঁদের বক্রতায়, সেই পৃথিবী, দুই তীর, পাগড়ী, একটি তুলসী গাছের আত্মকাহিনী, কেয়ারা ইত্যাদি।

Ans: D

২৬. সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকে দ্বিতীয় অঙ্কের প্রথম দৃশ্যের স্থান কোনটি?

A. ঘসেটি বেগমের বাড়ি B. নবাবের দরবার C. মীর জাফরের আবাস D. লুৎফুন্নিসার কক্ষ

ব্যাখ্যা। নাট্যকার সিকান্দার আবু জাফর এর ‘সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকের গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য :

• নাটকের মোট অল্পসংখ্যা- ৪টি।
• নাটকটির মোট দৃশ্যসংখ্যা- ১২টি।
• নাটকটির ১ম দৃশ্যস্থান- ফোর্ট উইলিয়াম দূর্গ ।
•নাটকটির শেষ দৃশ্যস্থান- জাফরাগঞ্জের কয়েদখানা।
• নাটকটির ২য় অক্ষের ১ম দৃশ্যস্থান- নবাবের দরবার।
• ২য় অঙ্কের ১ম দৃশ্যের চরিত্রসমূহ- নকিব, সিরাজ, রাজবল্লভ,
মিরজাফর, জগৎশেঠ, রায়দুর্লভ, উৎপীড়িত ব্যক্তি, ওয়াটস, মোহনলাল।

Ans: B.

২৭. কোনটিতে ব-ফলার উচ্চারণ বহাল রয়েছে?

A. বিধ্বস্ত B. উর্দ্বতন C.স্বত্ব D. দ্বন্দ্ব

Ans: B.

২৮. অভিমানে কোন শব্দটি ভাগে থাকবে?

A.নেষা B.নীলিমা C. দৃশংসতা D. নৃশংস

Ans: B.

২৯. দয়া করে আমাকে কিছু টাকা দিন-এটি কী ধরনের বাক্য?

A. অনুজ্ঞাবাচক B. বিস্ময়বাচক C.প্রশ্নবাচক D. নেতিবাচক

Ans: A

৩০. প্রকৃতি সঙ্গে মানব মনের সম্পর্ক দিকটি কোন কবিতায় স্পষ্ট?

A. বিভীষণের প্রতি মেঘনাদ B. তাহারেই পড়ে মনে C.সাম্যবাদী D. ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯

Ans: B

৩১. ‘Fairy tale’ – শব্দের বাংলা পরিভাষা কোনটি?

A. কথাসাহিত্য B. রুপকথা C. লোকগীতিকা D. গীতিনাট্য

Ans: B

৩২. বিভূতিভূষণ বন্দোপাধ্যায়ের গল্পগ্রন্থ কোনটি?

A. ইছামতি B. অশনি সংকেত C. মেঘমল্লার D. গীতিনাট্য D. অপরাজিতা

ব্যাখ্যা : কথাসাহিত্যিক ‘বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়’ এর বিখ্যাত কিছু রচনার নাম-

• গল্পগ্রন্থ- মেঘমল্লার, মৌরীফুল, যাত্রাবদল, কিন্নরদল।

• উপন্যাস – পথের পাঁচালি, অপরাজিতা, দৃষ্টিপ্রদীপ, আরণ্যক, আদর্শ হিন্দু হোটেল, বিপিনের সংসার, দুই বাড়ি, অনুবর্তন, দেবযান, কেদার রাজা, অথৈজল, ইছামতি ইত্যাদি।

Ans: C.

৩৩. কোনটি বাগধারার উদাহরণ?

A. কিংকর্তব্যবিমূঢ় B. অহোরাত্র C. ভবনদী D.ননীর পুতুল

Ans: A.

ব্যাখ্যা : গুরুত্বপূর্ণ কিছু বাগধারা

• ননীর পুতুল -আদুরে দুলাল।

• নোলা বাড়ানো-লোভ করা।

• নারদের ঢেঁকি – বিবাদের বিষয়।

• নরক গুলজার-অনেকে জুটে সরগরম।

• নগদ নারায়ণ-নগদ অর্থ।

• নাড়াবুনে- মূর্খ।

• নমাসে ছমাসে কালেভদ্রে।

• নিমরাজি – আংশিক স্বীকার করা।

• নাচতে নেমে ঘোমটা- বৃদ্ধা লজ্জা।

Ans: D.

৩৪. ‘চা’ শব্দটি কোন ভাষা থেকে বাংলা ভাষায় এসেছে?

A. গ্রিক B. হিব্রু C. ল্যাটিন D.চীনা

Ans: D

৩৫. কোন শব্দটির প্রয়োগ শুদ্ধ?

A. বৈশিষ্ট্যতা B. সৌন্দর্যতা C. আধিক্যতা D.সুন্দরতা

Ans: D

Facebook
Twitter
LinkedIn

Related Posts

No Content Available

Related Posts

Welcome Back!

Login to your account below

Create New Account!

Fill the forms bellow to register

Retrieve your password

Please enter your username or email address to reset your password.

x

Add New Playlist

Are you sure want to unlock this post?
Unlock left : 0
Are you sure want to cancel subscription?